বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী মৎস্য লীগের, মেয়াদ শেষ হওয়ার কারনে। এক বছরের জন্য ,আনশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বরকইট ইউনিয়নের শ্রীমন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় এর সাবেক সহকারী সিনিয়র শিক্ষক মোঃ আব্দুল বাতেন মাওলানা সাহেব আজ ৫টা ৩০ মিনিটে তাহার নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। কুমিল্লার চান্দিনায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম মুন্সীকে হত্যা চেষ্টাও চাঁদাবাজি মামলায় ইব্রাহিম খলিল ইবু কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে পুলিশ এসডিজি ইয়ুথ সামিট ২০২২ এর রেজিস্ট্রেশন শুরু! আবারো শ্রেষ্ঠত্ব পুরস্কার পেলেন এএসআই মোঃ ইসমাইল হোসেন কুমিল্লার বুড়িচংয়ে বজ্রপাতে কিশোরের মৃত্যু কুমিল্লা চান্দিনা আহতদের খবর নেন, মেয়র কুমিল্লার লালমাই ও বরুড়ায় ভন্ড কবিরাজ ভুয়া  সাংবাদিক হয়ে অভিনব কায়দায় প্রতারণা।প্রশাসন নিশ্চুপ  কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার কর্মরত ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকের  নামের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে  জেলা প্রশাসকের বিশেষ মাধ্যমে বিষ কিনতে গিয়ে দোকানদারের সাথে প্রেম,পরে দোকানদার বাড়িতে অনশন

কুমিল্লার লালমাই ও বরুড়ায় ভন্ড কবিরাজ ভুয়া  সাংবাদিক হয়ে অভিনব কায়দায় প্রতারণা।প্রশাসন নিশ্চুপ 

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লা জেলার লালমাই ও বরুড়া উপজেলার ভন্ড কবিরাজ এখন কবিরাজির ভণ্ডামির সাথে প্রশাসনের নজর কাড়তে এখন হয়েছে সাংবাদিক।

ভন্ড এই কবিরাজের বাড়ি কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার বাউকসার এলাকার মৃত আবদুল মতিনের ছেলে ভুন্ড কবিরাজ আলমগীর হোসেন।

১৯৯১ সালের ২৯ মার্চ জন্ম নেওয়া এই ভন্ড তার বক্তিগত জীবনে কবিরাজির অন্তরালে সংসার জীবনেও তার স্ত্রীর সাথে অনেক ধরনের প্রতারণা করে এক পর্যায়ে তাকে পাগল বানিয়ে ছেড়ে দিলে তার স্ত্রী কুমিল্লার লাকসাম থানায় ও আসেন মামলা করার জন্য।

যাকে তাকে পুলিশ ও র‍্যাবের ভয় দেখিয়ে হেনস্ত করার হুমকি দিয়ে আসছে। তার এই অপশক্তির পিছনে কার হাত আছে তা খতিয়ে দেখতে প্রশাসনকে আহবান করা হলো।

ভন্ড কবিরাজ আলমগীর একটা প্রেস কার্ড পাওয়ার জন্য মোটা অংকের টাকাও দিয়েছেন বিভিন্ন জায়গায়, কোন প্রতিষ্ঠান তার শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ চাইলে পরে হারিয়ে গেছে এটা সেটা বলেও প্রতারণা করে আসছে এই ভন্ড কবিরাজ।

বিভিন্ন জায়গায় সাংবাদিক পরিচয় দিয়েও হয়রানির শেষ নাই, এই ভন্ডকে আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন বলে মনে করেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

ভাউকসার ও বিজরা বাজারে এই ভন্ড কবিরাজ, কবিরাজির ভন্ডামী করতে না পেরে বর্তমানে লালমাই উপজেলার বাগমারা বাজারে দারুন ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে এই কবিরাজি, সাথে হয়েছে সাংবাদিক, এখন তার এই ক্ষমতা দেখে হতবাক অনেকেই।

ভন্ড কবিরাজ আলমগীর হোসেনের দীর্ঘদিন যাবত এই ভণ্ডামির সাথে জড়িত থাকার ব্যাপারে জানতে চাইল, কবিরাজ বলেন, আমি একজন সাংবাদিক, আমার ব্যাপারে কিছু লেখালেখি হলে ২ লক্ষ টাকা চাঁদাবাজির কথা বলে র‍্যাব ও পুলিশের ভয় দেখি অকঠ্য ভাষায় গালাগালি করেন এই প্রতিবেদককে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


Our Like Page

প্রযুক্তি সহায়তায় Freelancer Zone